বৃহস্পতিবার-২ জুলাই ২০২০- সময়: রাত ১১:৫৩
বিরামপুরে পৌর মেয়র সহ ৭ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে বিরামপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী পালিত বিরামপুরে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি আটক বিরামপুরে লাখো কণ্ঠে ৭ মার্চের ভাষন পাঠ গুরুদাসপুরে এক বৃদ্ধা খুন বিরামপুরে সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত কাটলা হলি চাইল্ড স্কুল বিরামপুরে মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান দিদউফ বিরামপু‌রে দুস্থ শীতার্ত‌দের মা‌ঝে শীতবস্ত্র বিতরন বিরামপুরে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস ও জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণ গণনার সূচনা বিরামপুরে ১২ হাজার শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস খাওয়ানো হয়েছে

স্বাস্থ্য newsdiarybd.com:

বিরামপুরে পৌর মেয়র সহ ৭ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে

এম,আই,তানিম,বিরামপুরদিনাজপুরের বিরামপুর পৌর মেয়র লিয়াকত আলী সরকারসহ ৭ জন বিদেশ ফেরত ব্যক্তিকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. সোলায়মান হোসেন মেহেদী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্র সূত্রে জানা গেছে, হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তিদের ৪ জন ভারত, ১ জন সৌদ আরব, ১ জন সিঙ্গাপুর এবং ১ জন মালেয়েশিয়া থেকে দেশে এসেছেন। এসব ব্যক্তিরা এ মাসের ১০ থেকে ১৬ তারিখের মধ্যে দেশে আসেন। এরমধ্যে পৌর মেয়র ১২ তারিখে বিরামপুরে আসেন।

বুধবার (১৮ মার্চ) রাতে ওই ফেরত ব্যক্তিদের নিজ এলাকায় আসার খবর পেয়ে ইউএনও মো. তৌহিদুর রহমান, অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান এবং উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. সোলায়মান হোসেন মেহেদী ওইসব ব্যক্তিদের বাড়িতে যান। বিদেশ ফেরত ব্যক্তিদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দিয়ে আসেন। সেই সাথে বিদেশ ফেরত ব্যক্তিরা হোম কোয়ারেন্টাইনের নির্দেশনা না মানলে বিষয়টি প্রশাসনকে অবগত করতে প্রতিবেশিদের তাগিদ দেওয়া হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মো. সোলায়মান হোসেন মেহেদী জানান, বিরামপুর পৌর মেয়র লিয়াকত আলী সরকার গত ১২ মার্চ ভারত থেকে দেশে ফেরেন। কিন্তু তিনি হোম কোয়ারেন্টাইনে ছিলেন না। ১৮ মার্চ বুধবার মেয়র লিয়াকত আলী সরকারের সর্দি ও কাশি দেখা দিলে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়।

বিরামপুরে সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত কাটলা হলি চাইল্ড স্কুল

বিরামপুর সংবাদদাতা-বিরামপুর উপজেলার কাটলা হলি চাইল্ড স্কুলের ১৬ জন শিক্ষার্থী এবারের প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় উপজেলার মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। জেএসসি পরীক্ষায় শতভাগ পাশের মাধ্যমে অর্জন করেছে আশাতীত সাফল্য।

জানা গেছে, উপজেলার সীমান্তবর্তী কাটলা ইউনিয়নে কলেজের পাশে ২০০১ সালে বেসরকারি ভাবে তৈরী করা হয় কাটলা হলি চাইল্ড স্কুল। প্রত্যন্ত গ্রাম এলাকায় এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠলেও শিশু শ্রেণি থেকে ৮ম শ্রেণি পর্যন্ত এর শিক্ষার্থী সংখ্যা প্রায় ৫০০ জন।

কাটলা হলি চাইল্ড স্কুলের প্রধান শিক্ষক সায়েদ আলী সরকার জানান, ২০১৯ সালে এ স্কুল থেকে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় ৩৪জন শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করে। তাদের মধ্যে ২৯জন জিপিএ-৫ এবং বাঁকীরা এ গ্রেডে পাশ করেছে। উপজেলার মেধা তালিকার সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা এ স্কুলের। অর্থাৎ ৫৭৫ থেকে ৫৯০ পর্যন্ত নম্বর প্রাপ্ত ১৬ জন শিক্ষার্থী কাটলা হলি চাইল্ড স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী।

জেএসসি পরীক্ষায় এ স্কুল থেকে ৪০ জন শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করে। তাদের শতভাগ পাশের মধ্যে ৯ জন জিপিএ-৫, ২৯ জন এ গ্রেড, ১জন এ- ও ১জন বি গ্রেডে পাশ করেছে।

আশানুরূপ ফলাফল প্রসঙ্গে প্রধান শিক্ষক বলেন, কাটলা হলি চাইল্ড স্কুলের কোন শিক্ষার্থীকে প্রাইভেট বা কোচিং করতে হয়না; ক্লাসের পড়া ক্লাসেই সম্পন্ন করা হয়। শিক্ষকদের ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠা ও শিক্ষার্থীদের আগ্রহে ভাল ফলাফল সম্ভব হয়েছে।

বিরামপুরে ১২ হাজার শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস খাওয়ানো হয়েছে

এম আই তানিম-বিরামপুর উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের ১৬৯টি কেন্দ্রের মাধ্যমে শনিবার (১১ জানুঃ) উৎসব মূখর পরিবেশে প্রায় ১২ হাজার ৩৪৫জন শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপস্যুল খাওয়ানো হয়েছে।

সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টিকা খাওয়ানোর উদ্বোধন করেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদুর রহমান এবং উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সোলায়মান হোসেন মেহেদী।

এসময় হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ আহসান আলী সরকার, ডাঃ মোহাম্মদ আলী হোসেন শাহ, এমটিইপিআই মাসুদ রানা সহ চিকিৎসক, কর্মকর্তা ও স্বাস্থ্যকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন।

কালো জাম ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে

স্বাস্থ্য ডেস্ক-ডায়াবেটিস হলে শরীরে ইনসুলিন হরমোনের নিঃসরণ কমে যায়। ফলে দেহের কোষে গ্লুকোজ পৌঁছাতে পারে না। ফলে রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ বেড়ে যায়।

অতিরিক্ত শর্করাযুক্ত খাবার ডায়াবেটিসের জন্য যেমন দায়ী। ডায়াবেটিস কখনও পুরোপুরি ভালো হয় না। তবে এই রোগ নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়। খাদ্যাভাসের মাধ্যমে এটি নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।

কালো জামের কথা আমরা সবাই জানি। এই কালো জামের দানা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। জামের দানায় রয়েছে অত্যাবশ্যকীয় কিছু পুষ্টি উপাদান। যা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ করে।

পুষ্টিবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জামের দানার উপকারিতা সম্পর্কে জানানো হয়েছে।

জামের পুষ্টিগুণ-

১.জামের দানায় রয়েছে জ্যামবোসিন এবং জ্যাম্বোলিন নামক অত্যাবশ্যকীয় উপাদান। যা ধীরে ধীরে শর্করার মাত্রা নিয়িন্ত্রণ করতে সহায়তা করে ও শক্তিযোগায়।

২.জামের দানায় হঠাৎ রক্তে শর্করা বেড়ে যাওয়া নিয়ন্ত্রণ করে। এ ছাড়া শরীরে ইন্সুলিনের ভারসাম্য বজায় রেখে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে করে।

৩.জাম ফাইটোকেমিক্যাল সমৃদ্ধ যা শরীরের শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে এবং ইন্সুলিনের উৎপাদন সুনিয়ন্ত্রিত রাখতে সহায়তা করে।

৪.জামের দানায় থাকা জ্যাম্বোলাইন এবং জ্যাম্বোসিন উপাদানের জন্য তা ঔষধি গুণসম্পন্ন। এ ছাড়াও জামের দানায় রয়েছে অ্যাল্কালয়েডস। যা ডায়াবেটিসের সম্ভাবনা কমায়।

৫.জামের দানা উচ্চ আঁশসমৃদ্ধ। যা হজম ক্রিয়া উন্নত করতে এবং বিপাক বাড়াতে সহায়তা করে। ফলে শরীরের শর্করার মাত্রা ঠিক থাকে।

৬. আয়ুর্বেদ শাস্ত্র থেকে জানা যায়, জাম অ্যাজমা, আর্থ্রাইটিস, হৃদরোগ, পেট ফাঁপা ও আমাশয় থেকে রক্ষা করে।

৭. জামের মূত্র বর্ধক ক্ষমতার কারণে কিডনি থেকে বিষাক্ত উপাদান বের হয়ে যায়।

৮.জামে থাকা আঁশ হজমে সহায়তা করে। এ ছাড়া বমি বমি ভাব দূর করে।

চক্ষু চিকিৎসার উন্নয়নে নবাবগঞ্জে ব্র্যাক ভিশন সেন্টারের উদ্বোধন

সাজেদুল ইসলাম সাগর-কম্পিউটারাইজড রেজিষ্ট্রেশন, চোখের সমস্যা দ্রুত চিহ্নিত করণ, চোখের দৃষ্টিশক্তি পরীক্ষণ, চোখের রিফ্রাকশন, স্লিট ল্যাম্পে চোখ পরীক্ষা, প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষা-নীরিক্ষা, টেলিমেডিসিন সেবা ও কম্পিউটারাইজড পেসক্রিপশন, স্বল্পমূল্যে চশমা ও ঔষধ প্রদান, কাউন্সিলিং ফলোআপ ও রেফারেল সেবা প্রদান, মাঠ পর্যায়ে প্রাথমিক চক্ষু পরিচর্যা বিষয়ক প্রশিক্ষণ, প্রাথমিক চক্ষু পরিচর্যা বিষয়ক ওরিয়েন্টেশন ও স্কুল সাইট টেষ্টিং প্রোগ্রাম পরিচালনার অঙ্গীকার।

বুধবার সকাল ১০ টায় দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে ব্র্যাক ভিশন সেন্টারের আনুষ্ঠানিকভাবে ফিতা কেটে উদ্বোধন করা হয়েছে। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদ সভকক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, ব্র্যাকের স্বাস্থ্য-পুষ্টি জণসংখ্যা কর্মসূচীর সিনিয়র সেক্টর, স্পেশালিষ্ট ডাঃ মোঃ মফিজুর রহমান।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আতাউর রহমান।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ খায়রুল ইসলাম (তপন), কর্মসূচীর সংগঠক আইডিপি’র সুভাষ পাহান, সংস্থার এলাকা ব্যবস্থাপক, রাকিবুল ইসলাম, দিনাজপুর জেলা ব্যবস্থাপক নির্মল কেরকেটা, তৌহিক ইকবাল প্রমুখ।

অরবিস ইন্টারন্যাশনাল’এর পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন- ডিরেক্টর প্রোগ্রামস মোঃ আলাউদ্দিন ও প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর পারভেজ হোসেন। এছাড়াও ব্র্যাকের অন্যান্য কর্মকর্তা কর্মচারীগণ এতে উপস্থিত ছিলেন।

বিরামপুরে বিনামূল্যে চক্ষু শিবির


বিরামপুর উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রামের রোগিদের জন্য শনিবার (১৪ ডিসেঃ) কেটরা উচ্চ বিদ্যালয়ে বিনামূল্যে চক্ষু শিবিরের আয়োজর করা হয়।

পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে গ্রাম বিকাশ কেন্দ্রের সমৃদ্ধি কর্মসূচির আওতায় সৈয়দপুর মরিয়ম চক্ষু হাসপাতালের কারিগরী সহযোগিতায় দিনব্যাপী ২ শতাধিক রোগির চক্ষু পরীক্ষা ও চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। তাদের মধ্যে ২০ জনকে ছানি অপারেশনের জন্য নির্বাচিত করা হয়।

সকালে চক্ষু শিবিরের উদ্বোধন করেন, জোতবানী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, গ্রাম বিকাশের সমৃদ্ধি কর্মসূচির সমন্বয়কারী গোলাম নবী, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শাহীন আলম ও সামিউল বাসির।

চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন, ডাঃ সাফিউল হাসান সাকিব, ডাঃ ইবনে ফয়সাল মুরাদ ও নিলুফা ইয়াছমিন।

বিরামপুরে অসহায় ও দরিদ্রদের বিনামূল্যে চোখের অপারেশন

বিরামপুর (দিনাজপুর) থেকে- প্রস্তাবিত জেলা শহর বিরামপুরে অসহায় ও দরিদ্র রোগীদের ইনসানিয়াত সোসাইটি ও দিনাজপুর দক্ষিণাঞ্চল উন্নয়ন ফোরাম যৌথ উদ্দ্যেগে দিনাজপুর দক্ষিনাঞ্চলের তিনটি প্যাকেজের আওতায় ১০০ জনের অসহায় ও দরিদ্র রোগীদের বিনামূল্যে চোখের সানি অপারেশন ও লেন্স সংযোজন করা হয়েছে।
১১ ডিসেম্বর বুধবার চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও অধ্যাপক ডাঃ মোঃ মোখলেছুর রহমানের তত্বাবধায়নে ডাঃ ইমার উদ্দিন কমিউনিটি হাসপাতালে ১০০ জন রোগীর অপারেশন সর্ম্পূণ হয়েছে।
ডাঃ মোঃ মোখলেছুর রহমান বলেন, ইনসানিয়াত সোসাইটি’র যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও বাংলাদেশ রেলওয়ের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অবঃ) প্রকৌশলী মোঃ ফরহাদ রেজা এলাকার অসহায় ও দরিদ্র রোগীদের জন্য একটি বিশেষ তহবিলের মাধ্যমে এ ক্যাম্পের আয়োজন করেন।
ডাঃ মোঃ ইমার উদ্দিন কায়েস বলেন, দিনাজপুর দক্ষিণাঞ্চল উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি বিগ্রেডিয়ার (অবঃ) মাসুদ আলী খানের তত্বাবধায়নে এই অঞ্চলের বিরামপুর, হাকিমপুর, নবাবগঞ্জ ও ঘোড়াঘাট উপজেলার মানব সেবায় এক বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।
চোখ অপারেশন করতে আসা রোগী তোফাজ্জল হোসেন বলেন, “আমরা গরিব মানুষ এত টাকা ব্যয় করে চোখের অপারেশন করা সম্ভব নয় বা” যারা এ আয়োজন করেছে আল্লাহ অমাক ভালো করুক।
এছাড়াও ইতিপূর্বে দরিদ্র রোগীদের হাইড্রোসিল, হারনিয়া, ইউট্রাস, গল ব্লাডার , অ্যাপেনডিক্স অপারেশন এ সংগঠনের মাধ্যমে করা হয়েছে।

বিরামপুরে পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ শুরু

এম আই তানিম, বিরামপুর- পরিবার-পরিকল্পনা সেবা গ্রহণ করি, কৈশোরকালীন মাতৃত্ব রোধ করি, এই স্লোগানকে সামনে রেখে পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহ (৭-১২ ডিসেম্বর) উপলক্ষে দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ফিতা কেটে সেবা সপ্তাহ এর শুভ উদ্বোধন ও অ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৭ ডিসেম্বর শনিবার থেকে সেবা ও প্রচার সপ্তাহ শুরু হয়ে চলবে আগামী ১২ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

সভায় উপজেলা পরিবার-পরিকল্পনা অফিসার মোঃ আব্দুল মতিন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ মেজবাউল ইসলাম মন্ডল ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাঃ সিরাজুল ইসলাম, বিরামপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হক মানিক এবং পরিবার পরিকল্পনায় কর্মরত মাঠ পর্যায়ের কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সেবা সপ্তাহে প্রতিদিন মাঠ পর্যায়ে প্রতিটি সেবা কেন্দ্রে পরিবার পরিকল্পনার বিশেষ ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হবে এবং গর্ভবতী মায়েদের চেকআপ ও অন্যান্য সেবা দেয়া হবে।

এ জন্য প্রয়োজনীয় ওষুধ সরবরাহ ইতোমধ্যে নিশ্চিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিবার-পরিকল্পনা অফিসার মো. আব্দুল মতিন।

মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বিরামপুরে রক্তদান কর্মসূচি

এম আই তানিম,বিরামপুর-‘মহান বিজয় দিবস’ ২০১৯ উপলক্ষে ৮ ডিসেম্বর রবিবার দিনব্যাপী স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি পালন করেছে পবন কুন্ডু স্মৃতি সংঘ নামে একটি সামাজিক সংগঠন।

দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এর কার্যালয় চত্বরে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন বিরামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ খায়রুল আলম রাজু। কর্মসূচিতে সার্বিকভাবে সহায়তা করেন রেড ক্রিসেন্ট ব্লাড ব্যাংক দিনাজপুর।

এতে উপজেলা ছাত্রলীগ ও সেচ্ছা সেবকলীগের ৫০ নেতাকর্মী রক্ত দান করেন। এ সময় বিনা মূল্যে কয়েকশ মানুষের রক্তের গ্রুপও নির্ণয় করা হয়।

বিরামপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মো.খায়রুল আলম রাজু বলেন, মহান বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে রক্তদান কর্মসূচীর মাধ্যমে অসহায় মানুষের পাশে দাড়ানোই এই কর্মসূচীর মুল লক্ষ।

সংগঠনের সভাপতি মৃতুঞ্জয় কুন্ডু স্বদেশের সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন, বিরামপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ মেজবাউল ইসলাম মন্ডল,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে কুলছুম বানু, অধ্যক্ষ শিশির কুমার , উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি নারু গোপাল কুন্ডু, গোলজার হোসেন, রাজনীতিবিদ দীলিপ কুন্ডু, বিরামপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আকরাম হোসেন সহ প্রমুখ।

বিরামপুরে অসহায় ও দরিদ্রদের বিনামূল্যে চোখের অপারেশন

 

বিরামপুর-প্রস্তাবিত জেলা শহর বিরামপুরে অসহায় ও দরিদ্র রোগীদের ইনসানিয়াত সোসাইটি ও দিনাজপুর দক্ষিণাঞ্চল উন্নয়ন ফোরাম যৌথ উদ্দ্যেগে দিনাজপুর দক্ষিনাঞ্চলের বিরামপুর, নবাবগঞ্জ, ঘোড়াঘাট ও হাকিমপুর উপজেলার রোগীদের বিনামূল্যে চোখের সানি অপারেশন ও লেন্স সংযোজন করা হয়েছে।
১৭ নভেম্বর রবিবার চক্ষু বিশেষজ্ঞ ও অধ্যাপক ডাঃ মোঃ মোখলেছুর রহমানের তত্বাবধায়নে ডাঃ ইমার উদ্দিন কমিউনিটি হাসপাতালে পাঁচটি প্যাকেজের আওতায় ১০০ জন রোগীর অপারেশন সর্ম্পূণ হয়েছে।
ডাঃ মোঃ মোখলেছুর রহমান বলেন, ইনসানিয়াত সোসাইটি’র প্রকৌশলী মোঃ ফরহাদ রেজা এলাকার অসহায় ও দরিদ্র রোগীদের সেবায় মহান উদ্যেগ গ্রহন করেছে।
ডাঃ মোঃ ইমার উদ্দিন কায়েস বলেন, দিনাজপুর দক্ষিণাঞ্চল উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি বিগ্রেডিয়ার (অবঃ) মাসুদ আলী খানের তত্বাবধায়নে অত্র অঞ্চলের চারটি উপজেলার মানব সেবায় এক বীরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।
চোখ অপারেশন করতে আসা রোগী মনোয়ারা বলেন, “আমরা গরিব মানুষ এত টাকা ব্যয় করে চখের অপারেশন করা সম্ভব নয় বা” যারা এ আয়োজন করেছে আল্লাহ অমাক ভালো করুক।
এছাড়াও হাইড্রোসিল হারনিয়া, ইউট্রাস অপারেশন ও ইতিমধ্যে এ সংগঠনের মাধ্যমে সর্ম্পূণ হয়েছে।