বৃহস্পতিবার-২ জুলাই ২০২০- সময়: রাত ১১:৫৭
বিরামপুরে পৌর মেয়র সহ ৭ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে বিরামপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী পালিত বিরামপুরে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি আটক বিরামপুরে লাখো কণ্ঠে ৭ মার্চের ভাষন পাঠ গুরুদাসপুরে এক বৃদ্ধা খুন বিরামপুরে সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত কাটলা হলি চাইল্ড স্কুল বিরামপুরে মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান দিদউফ বিরামপু‌রে দুস্থ শীতার্ত‌দের মা‌ঝে শীতবস্ত্র বিতরন বিরামপুরে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস ও জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণ গণনার সূচনা বিরামপুরে ১২ হাজার শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস খাওয়ানো হয়েছে

শিক্ষাঙ্গন newsdiarybd.com:

বিরামপুরে সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত কাটলা হলি চাইল্ড স্কুল

বিরামপুর সংবাদদাতা-বিরামপুর উপজেলার কাটলা হলি চাইল্ড স্কুলের ১৬ জন শিক্ষার্থী এবারের প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় উপজেলার মধ্যে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। জেএসসি পরীক্ষায় শতভাগ পাশের মাধ্যমে অর্জন করেছে আশাতীত সাফল্য।

জানা গেছে, উপজেলার সীমান্তবর্তী কাটলা ইউনিয়নে কলেজের পাশে ২০০১ সালে বেসরকারি ভাবে তৈরী করা হয় কাটলা হলি চাইল্ড স্কুল। প্রত্যন্ত গ্রাম এলাকায় এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠলেও শিশু শ্রেণি থেকে ৮ম শ্রেণি পর্যন্ত এর শিক্ষার্থী সংখ্যা প্রায় ৫০০ জন।

কাটলা হলি চাইল্ড স্কুলের প্রধান শিক্ষক সায়েদ আলী সরকার জানান, ২০১৯ সালে এ স্কুল থেকে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় ৩৪জন শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করে। তাদের মধ্যে ২৯জন জিপিএ-৫ এবং বাঁকীরা এ গ্রেডে পাশ করেছে। উপজেলার মেধা তালিকার সর্বোচ্চ নম্বর প্রাপ্ত শিক্ষার্থীরা এ স্কুলের। অর্থাৎ ৫৭৫ থেকে ৫৯০ পর্যন্ত নম্বর প্রাপ্ত ১৬ জন শিক্ষার্থী কাটলা হলি চাইল্ড স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী।

জেএসসি পরীক্ষায় এ স্কুল থেকে ৪০ জন শিক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করে। তাদের শতভাগ পাশের মধ্যে ৯ জন জিপিএ-৫, ২৯ জন এ গ্রেড, ১জন এ- ও ১জন বি গ্রেডে পাশ করেছে।

আশানুরূপ ফলাফল প্রসঙ্গে প্রধান শিক্ষক বলেন, কাটলা হলি চাইল্ড স্কুলের কোন শিক্ষার্থীকে প্রাইভেট বা কোচিং করতে হয়না; ক্লাসের পড়া ক্লাসেই সম্পন্ন করা হয়। শিক্ষকদের ঐকান্তিক প্রচেষ্ঠা ও শিক্ষার্থীদের আগ্রহে ভাল ফলাফল সম্ভব হয়েছে।

শিক্ষানগরী হিসেবে গড়ে উঠেছে বীরগঞ্জ সুবর্ণ জয়ন্তীতে- মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি

ফজিবর রহমান বাবু- জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেছেন, বর্তমান বিজ্ঞান ভিত্তিক যুগে শিক্ষা ব্যবস্থাকে ব্যাপক গুরুত্ব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আমাদের দেশের ছেলে-মেয়েরা যাতে বিশ্ব মানের লেখাপড়া শিখতে পারে ও তাদের বিদ্যালয়ে যাওয়ার আগ্রহ বাড়ে এ জন্য তিনি বিদ্যালয়গুলোতে নতুন নতুন ভবন নির্মান করে দিচ্ছেন।

দিনাজপুরের কাহারোল-বীরগঞ্জ উপজেলায় বিদ্যালয় গুলোতে নতুন ভবন নির্মান করা হয়েছে। পাশাপাশি লেখাপড়ার মানও বেড়েছে।

বীরগঞ্জ-কাহারোল উপজেলা থেকে মেধাবী শিক্ষার্থীরা দেশের সবচেয়ে বড় বিদ্যাপিঠে ভর্তির সুযোগ পাচ্ছে। আর মেধাবী যারা অর্থের অভাবে ভর্তির সুযোগ পাচ্ছে না তাদের আমরা অর্থ সহায়তা দিয়ে ভর্তির সুযোগ করে দিচ্ছি। বীরগঞ্জ উপজেলা এখন শিক্ষানগরী হিসেবে গড়ে উঠেছে। এই উপজেলায় দুটি সরকারি স্কুলে ১৪ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬ তলা বিশিষ্ট দুটি একাডেমিক ভবনের ভিত্তি প্রস্তরের স্থাপন করা হয়েছে।

২৬ ডিসেম্বর ২০১৯ বীরগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন ও পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেছেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০ টায় জাতীয় সংগীতের তালে তালে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও বেলুন ফেস্টুন উড়িয়ে সুবর্ণ জয়ন্তীর উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি মনোরঞ্জন শীল গোপাল এমপি। এরপর বিশাল শোভাযাত্রা স্কুলের সামনে থেকে বের হয়ে পৌর শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদিক্ষণ করে।

শোভাযাত্রায় এমপি গোপালসহ পাইলট স্কুলের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা, শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক এবং স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ অংশ গ্রহণ করে।

সুনামধন্য এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বীরগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে (২৫ ও ২৬ ডিসেম্বর) দুই দিনব্যাপী ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়। সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষ্যে পুরো বিদ্যালয়টি সাজানো হয়। পুরনো শিক্ষার্থীর একত্রে মিলে ব্যাচ ব্যাচ মিছিল করে। বিভিন্ন বয়সের নতুন ও পুরাতন সকল শিক্ষার্থীর উপস্থিতিতে বিদ্যালয় চত্বরটি যেন মিলন মেলায় পরিনত হয়।

সূবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠানে মুখ্য আলোচক হিসেবে বক্তব্য দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূতপূর্ব অধ্যাপক বিশিষ্ট চিন্তাবিদ ও সমাজচিন্ততক অধ্যাপক আবুল কাশেম ফজলুল হক।

আলোচনা সভায় সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ও বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব জাকারিয়া জাকার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বীরগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আমিনুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইয়ামিন হোসেন, বীরগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোঃ মোশাররফ হোসেন, জেলা শিক্ষা অফিসার রফিকুল ইসলাম, বীরগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ খয়রুল ইসলাম চৌধুরী।

আলোচনা সভা শেষে ডকুমেন্টারি ও থিম সংগীত পরিবেশন করা হয়। আলোচনা সভা শেষে সংবর্ধনা ও স্মৃতিচারণ, সংগীতানুষ্ঠান এবং আতশবাজীর মাধ্যামে এই বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের সমাপনী ঘোষনা করা হয়।

পুরো অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন, ১৯৮২ ব্যাচের শিক্ষার্থী সুভাষ দাস।

উল্লেখ্য, বীরগঞ্জ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়টি ১৯৬২ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। সে সময় স্কুলের নাম ছিল বীরগঞ্জ পাইলট বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়। পরে ১৯৮৫ সালে স্কুলটি সরকারি করণ করা হয়।

ফেরদৌস আলী খান মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়

মোসলেম উদ্দিন- দিনাজপুরের হিলিতে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেছেন ফেরদৌস আলী খান মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ও পরিচালনা পরিষদের সদস্যরা।

রবিবার দুপুর ১২টায় স্কুল অ্যান্ড কলেজ প্রাঙ্গনে আল জামিয়াতুল ইসলামিয়া আজিজিয়া আনওয়ারুল উলুম মাদ্রাসার ও স্কুল এন্ড কলেজের উপদেষ্টা মুহতামিম সামছুল হুদা খান এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ উইং কমান্ডার এসএমএম শহীদুজ্জামান, হাকিমপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি গোলাম মোস্তাফিজার রহমান মিলন, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বুলু,।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ডিবিসি নিউজের হিলি প্রতিনিধি মাসুদুল হক রুবেল, হাকিমপুর প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সময় টিভির হিলি প্রতিনিধি শফিকুল ইসলাম শফিক, বাংলাভিশনের হিলি প্রতিনিধি মুরাদ ইমাম কবির, মাছরাঙ্গা টিভির হিলি প্রতিনিধি হালিম আল রাজী, একুশে টিভির হিলি প্রতিনিধি সালাউদ্দিন বকুল, আরটিভি হিলি প্রতিনিধি আব্দুল আজিজ, মুভি বাংলা টিভি ও ইংরেজী ডেইলি ইন্ডাস্টি পত্রিকার প্রতিনিধি সোহেল রানা, দৈনিক মানবকন্ঠের প্রতিনিধি মুসা মিয়া, দৈনিক আমার সংবাদ পত্রিকার প্রতিনিধি তারিকুল সরকার, ডেল্টা টাইমস পত্রিকার প্রতিনিধি তাছির উদ্দিন বাপ্পী, দৈনিক দেশ রুপান্তরের প্রতিনিধি খোকন, চ্যানেল এস টিভির প্রতিনিধি লুৎফর রহমান, দৈনিক জয়পুরহাট খবর পত্রিকার প্রতিনিধি মোয়াজ্জেম হোসেন, সাপ্তাহিক হিলিবার্তার স্টাফ রিপোর্টার মোস্তাকিম হোসেন, আমাদের নতুন সময় প্রতিনিধি তৌহিদুর রহমান, গোলাম রব্বানী প্রমুখ।

ফেরদৌস আলী খান মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ সাংবাদিকদের বলেন,স্কুল অ্যান্ড কলেজে বাংলা ও ইংরেজী ভাষনে লেখা পড়া করানো হবে।

মেধাবী ও গরীব ছাত্রদের টিউশন ফি ও ভর্তি ফি ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ ছাড় দেওয়া হয়েছে। ৮ জানুয়ারীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে স্কুল অ্যান্ড কলেজের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হবে বলে তিনি জানান।

বিরামপুরে ডিজিটাল হাজিরা মেশিন স্থাপনের উদ্ভোধন করলেন-এমপি শিবলী সাদিক

জাকিরুল ইসলাম, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি-দিনাজপুরের বিরামপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের উপস্থিতি নিশ্চিতে ডিজিটাল হাজিরা মেশিন স্থাপনের উদ্ভোধন করা হয়েছে।
মঙ্গলবার পৌর শহরের শিমুলতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান অতিথি হিসাবে ডিজিটাল হাজিরা মেশিন স্থাপনের উদ্ভোধন করেন দিনাজপুর- ৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক এমপি।
এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান খায়রুল আলম রাজু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদুর রহমান, মেয়র লিয়াকত আলী সরকার, থানার ওসি মনিরুজ্জামান, ভাইস-চেয়ারম্যান মেজবাউল ইসলাম, শিক্ষা অফিসার মিনারা বেগম, উপজেলা আ.লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক মাস্টার, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা তহমিনা বেগম, কাউন্সিলর মিজানুর রহমান, ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মৃত্যঞ্জয় স্বদেশ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুরাদ ইসলাম, বিদ্যালয়ের অনান্য শিক্ষকবৃন্দ, উপজেলা আ.লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিরামপুর সরকারি কলেজে আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণী

বিরামপুর (দিনাজপুর) থেকে-১২ডিস্মেবর বৃহস্পতিবার দুপুরে বিরামপুর সরকারি কলেজের বঙ্গবন্ধু হল রুমে সহশিক্ষা কার্যক্রম তোমরা না আমরাই শ্রেষ্ঠ আলোচনা সভা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের অধ্যক্ষ ফরহাদ হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, দিনাজপুর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলি সাদিক এমপি।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ খায়রুল আলম রাজু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার তোহিদুর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান মেজবাউল ইসলাম মন্ডল, ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে কুলসুম বানু, অধ্য বিরামপুর মহিলা কলেজ শিশির কুমার সরকার , উপাধ্যক্ষ মেজবাউল ইসলাম বিরামপুর মহিলা কলেজ, বিরামপুর প্রেসকাবের আহ্বায়ক একেএম শাহজাহান, প্রেসকাবের সাবেক সভাপতি আকরাম হোসেন, যুবলীগের সভাপতি আবু হেনা মোস্তফা কামাল, যুব মহিলা লিগের সভাপতি আমেনা বেগম, বিরামপুর সরকারী কলেজের উপাধ্যক্ষ অদৈত্য কুমার অপু সহ প্রমূখ।

নবাবগঞ্জ মহিলা ডিগ্রী কলেজের জয়ন্তী উদযাপন

 এম এ সাজেদুল ইসলাম সাগর-সিকি শতাব্দী পিছনে ফেলে আমরা চলেছি সামনে: জ্ঞানের শিখা প্রজ্জ্বলনই আমাদের ব্রত; এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ মহিলা ডিগ্রী কলেজের ২৫ বছর পূর্তি রজত জয়ন্তী অনুষ্ঠান এবং একাদশ শ্রেণীর ছাত্রীদের নবীন বরণ ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান উদযাপিত হয়েছে।

বুধবার সকাল সাড়ে ১০টায় কলেজ প্রাঙ্গণ থেকে কলেজের ছাত্রীদের অংশগ্রহণে বর্ণাঢ্য রেলি উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে কলেজ প্রাঙ্গণে নবীন বরণ অনুষ্ঠানে মিলিত হয়।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কলেজের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ সানোয়ার হোসেন মন্ডল, একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের কে দ্বাদশ শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা সংগীতের মধ্য দিয়ে রাখি বন্ধনের মাধ্যমে বরণ করে নেয়।

প্রধান অতিথি হিসেবে কলেজের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখেন, দিনাজপুর ৬ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ শিবলী সাদিক এমপি। স্বাগতম শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ শফিকুল ইসলাম।

বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মশিউর রহমান।

এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সাদেকুল ইসলাম, আমজাদ হোসেন, মোশারফ হোসেন, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পারুল বেগমসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।
 

নবাবগঞ্জে বিতর্ক প্রতিযোগিতা

সাজেদুল ইসলাম সাগর-দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে ৪১ তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ ও ৪১ তম জাতীয় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড উপলক্ষে বির্তক প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নবাবগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতা শেষে রবিবার বিকালে বিজ্ঞান মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরন করা হয়।

সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোঃ আল- মামুনের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরনী অন্ষ্ঠুানে বিজয়ীদের হাতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আতাউর রহমান পুরস্কার তুলে দেন।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছাঃ পারুল বেগম, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ তোফাজ্জল হোসেন, উপজেলা কৃষি অফিসার আবু রেজা মোঃ আসাদুজ্জামান, একাডেমিক সুপার ভাইজার মোঃ শফিউল আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিতর্ক প্রতিযোগিতায় নবাবগঞ্জ সরকারি বহুমুখী পাইলচ উচ্চ বিদ্যালয়কে পরাজিত করে নবীনগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় বিজয়ী হয়। এ ছাড়াও বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড প্রতিযোগিতায় মাধ্যমিক ও কলেজ পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা অংশ গ্রহণ করে।

সম্মানি না পেয়ে চিকিৎসা দিতে এলেন হারবাল এ্যাসিস্টেন্ট!

মো.মাহাবুর রহমান-দিনাজপুরের বিরামপুর পৌর শহরের চাঁদপুর মাদ্রাসায় চলমান জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা কেন্দ্রে ফাহিমা খাতুন নামের এক ছাত্রী অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। পরে, ওই কেন্দ্রের নিয়োগকৃত (অন-কল) ডাক্তার না গিয়ে ছাত্রীর চিকিৎসার জন্য পরীক্ষা কেন্দ্রে আসলেন হাসপাতালের হারবাল এ্যাসিস্টেন্ট আতাউর রহমান। ডাক্তার না এসে হারবাল এ্যাসিস্টেন্ট আসায় শিক্ষক ও অভিভাবকদের মাঝে বিস্ময়ের সৃষ্টি হয়েছে।

চাঁদপুর মাদ্রাসাকেন্দ্র সচিব অধ্যক্ষ আ.ছ.ম. হুমায়ুন কবীর জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) বাংলাদেশ ও বিশ^ পরিচয় বিষয়ে পরীক্ষা চলছিল।

তিনি জানান, বেলা ১১টার দিকে কানিকাটাল দারুল উলুম দাখিল মাদ্রাসার ছাত্রী ফাহিমা খাতুন মাথা ঘুরে পড়ে যায়। এসময় পরীক্ষা কেন্দ্রে নিয়োগকৃত (অন-কল) হাসপাতালের ডাক্তার মশিউর রহমানকে ফোনে ডাকা হয়।

তখন ডাঃ মশিউর রহমান পরীক্ষা কেন্দ্রে আসতে অপারগতা প্রকাশ করে বলেন, আপনি অনারিয়াম দেননা, তাই আপনার কেন্দ্রে যাওয়া যাবেনা; অসুস্থ্য ছাত্রীকে হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

পরীক্ষা চলাকালিন ছাত্রীকে হাসপাতালে নেওয়ার খবর শুনে কেন্দ্র সচিব ও উপস্থিত শিক্ষকগণ দিশেহারা হয়ে পড়েন। তারা তড়িঘড়ি করে মাদ্রাসার পাশের এক স্থানীয় চিকিৎসককে ডেকে এনে ছাত্রীর চিকিৎসা করালে কিছুক্ষণ পর ছাত্রী সুস্থ্য হয়ে পুনরায় পরীক্ষা দিতে বসে।

তিনি আরো জানান, অসুস্থ্য ছাত্রীটি সুস্থ্য হবার অনেক পরে পরীক্ষা কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত হাসপাতালের সেই চিকিৎসক ডাঃ মশিউর রহমান কেন্দ্রে না গিয়ে হাসপাতালের হারবাল এ্যাসিস্টেন্ট আতাউর রহমানকে ঐ ছাত্রীটির চিকিৎসা দিতে পাঠান।

জানতে চাইলে ডাঃ মশিউর রহমান বলেন, বিগত পরীক্ষাগুলোতে দায়িত্বে থাকার পরও কেন্দ্র সচিব আমাকে কোন সম্মানি দেন নাই। একারণে পরীক্ষা কেন্দ্রে না গিয়ে হাসপাতালের হারবাল এ্যাসিস্টেন্ট আতাউর রহমানকে চিকিৎসা দিতে পাঠানো হয়েছে।

ওই পরীক্ষা কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা নূর হোসেন মিয়া জানান,ডাক্তারের এই আচরণে আসি হকবম্ব হয়েছি। আমার মতে ডাক্তার কাজটি ঠিক করেন নাই।

বিরামপুর হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ সিরাজুল ইসলাম জানান, সম্মানি না পাওয়ার কারণে অসুস্থ্য ছাত্রীকে চিকিৎসা দিতে না যাওয়ার বিষয়টি দুঃখজনক।আমি এখনো কোন অভিযোগ পাইনি। বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তৌহিদুর রহমান জানান, পরীক্ষা কেন্দ্রে ছাত্রীকে চিকিৎসা দিতে না যাওয়ার বিষয়ে অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নবাবগঞ্জ আইসিটি ভবন নির্মাণ হলেও, এমপিও তালিকায় নাম না আসায় হতাশ এলাকাবাসি

এমএ সাজেদুল ইসরাম সাগর-দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার ৩নং গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নের প্রত্যন্ত গ্রামে রঘুনাথপুর মহাবিদ্যালয় সরকারের ৩ কোটি টাকা বরাদ্দে ৪তলা আইসিটি ভবন নির্মাণ করা হলেও শর্ত সাপেক্ষে এমপিও ভুক্তির সম্ভাবনা থাকলেও প্রতিষ্ঠানটি ২০১০ এবং ২০১৯ সালে এমপিও ভুক্তি তালিকা থেকে বঞ্চিত থাকায় এলাকাবাসীর মাঝে হতাশা সহ দেখা দিয়েছে ক্ষোভের। ওই কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ মাহবুবুর রহমান জানান, ১৯৯৯ সালে রঘুনাথপুর মহাবিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়।

২০০১ সালে পাঠদানের অনুমতি সহ ২০০৪ সালে স্বীকৃতি লাভ করে । প্রতিষ্ঠানটি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী এলাকায় অবস্থিত হওয়ায় ৪১জন জন ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠির শিক্ষার্থী সহ ২০৯জন শিক্ষার্থীর বর্তমানে অধ্যায়ন চলমান রয়েছে।

এছাড়াও ২০১৫ সাল থেকে ২০১৯ পর্যন্ত ফলাফলের গড় আনুপাতিক হার প্রতি বছর পরীক্ষার্থী ৬৪ জন,প্রতি বছর পাশ ৪০জন এবং পাশের হার ৬৪%।

তাছাড়াও নবাবগঞ্জ উপজেলার নন এমপিও প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সব দিক থেকে সেরা প্রতিষ্ঠান হয়েও এমপিও ভুক্তির তালিকায় স্থান পায়নি ।

প্রতিষ্ঠার ২০বছর অতি বাহিত হলেও ঐ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ,শিক্ষিকা ,কর্মচারী মানবেতর জীবন যাপন করছে। কবে কোন সালে এমপিওভুক্তি হবে এ নিয়ে দুশ্চিন্তায় দুর্বীসহ হতাশাগ্রস্থ অবস্থায় পড়ে রয়েছেন তারা।

প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ডা: মো: মোশারফ হোসেন জানান রঘুনাথপুর মহাবিদ্যালয়টি এমপিও ভুক্তির সকল শর্ত পুরন করলেও কি এক অজ্ঞাত রহস্য জনক কারণে এমপিওভুক্তি হল না অতীব দুঃখ জনক। তিনি দাবী করেছেন প্রয়োজনে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের পক্ষ থেকে নিরপেক্ষ ভাবে একটি তদন্ত টিম সরেজমিনে পর্যাবেক্ষন করলে মহাবিদ্যালয়টি এমপিও ভুক্তি হতে পারে। অধ্যক্ষ মাহবুবুর রহমান জানান অনেকে বয়সের কারণে অসুস্থতা সহ দৈন দশা দেখা দিয়েছে।

অপরদিকে ২০১৬ সালে চিকিৎসা সেবার অর্থ অভাবে পাকস্থলি ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হয়ে সমাজ কর্ম বিষয়ক প্রভাষক মোঃ হাবিবুর রহমান মৃত্যু বরণ করেছেন।

বর্তমানে তার পরিবারটি অভিভাবকহীন অবস্থায় অনাহারে অর্ধাহারে দিন যাপন করছেন। বিধায় প্রতিষ্ঠাটির সাবিক বিষয় বিবেচনা করে পরবর্তীতে সরকারের গৃহীত এমপিওভুক্তি করনের তালিকায় নাম অর্ন্তভুক্ত করনের দাবী জানিয়েছেন এলাকার সর্ব শ্রেনীর জনসাধারন।

শিবলী সাদিক এমপি আইসিটি স্কুলে বাস উপহার দিলেন

আজ বিরামপুর পৌর শহরে আইসিটি স্কুল বাস এর চাবি হস্তান্তর করেন,আইসিটি স্কুল এর প্রতিষ্ঠা শিবলী সাদিক এমপি। অত্র বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ ইউনুছ আলীর হাতে চাবি হস্তান্তর করেন।

এ সময় প্রধান শিক্ষক, শিক্ষকসহ ও বিরামপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের দলীয় নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।