বুধবার-২৯ জানুয়ারি ২০২০- সময়: ভোর ৫:০৫
গুরুদাসপুরে এক বৃদ্ধা খুন বিরামপুরে সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত কাটলা হলি চাইল্ড স্কুল বিরামপুরে মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান দিদউফ বিরামপু‌রে দুস্থ শীতার্ত‌দের মা‌ঝে শীতবস্ত্র বিতরন বিরামপুরে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস ও জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণ গণনার সূচনা বিরামপুরে ১২ হাজার শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস খাওয়ানো হয়েছে দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে সীতার কুটুরি গোচারণ ভূমিতে পরিণত কালো জাম ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে ঐতিহ্যবাহী খেজুর রস, কালের পরিক্রমায় প্রতি বছরই হাজির হয় শীত দিনাজপুর হতদরিদ্র শীতার্থ মানুষের পাশে এগিয়ে এসেছে ডিএফএর

অপরাধ newsdiarybd.com:

পাঁচবিবিতে ইয়াবাসহ আটক-১

পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিরিনধি- ২৩ ডিসেম্বর জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে ৭’শ পিস নেশার ট্যালেট ইয়াবাসহ ১’জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ।

আটক ব্যাক্তি পাঁচবিবি পৌর এলাকার গণেশপুর এলাকার মৃত এলাহী বক্স এর ছেলে আঃ গফুর।

থানার অফিসার ইনচার্জ মনসুর রহমান বলেন, সোমবার সকালে পাঁচবিবি ডিগ্রী কলেজের নির্মাধীন একটি বিল্ডিংয়ে ইয়াবাগুলো কেনাবেচার উদ্দেসে অবস্থান করছিল গফুর।

এসময় থানা পুলিশ হাতেনাতে ইয়াবাসহ তাকে আটক করে। পরে মাদক আইনের মামলায় তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

মাদক বিক্রি ও সেবনের দায়ে বিরামপুরে ৮ যুবকের কারাদণ্ড

এম আই তানিম,বিরামপুর-মাদক বিক্রি ও সেবনের অভিযোগে দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলায় ৮ যুবককে বিভিন্ন মেয়াদে ভ্রাম্যমাণ আদালতে কারদ- প্রদান করা হয়েছে। রবিবার রাতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট তৌহিদুর রহমান ভ্রাম্যমাণ আদালতের  কারাদণ্ডে এই রায় দেন।

কারাদণ্ড প্রাপ্তরা হলেন, উপজেলার কেশবপুর গ্রামের ফেলু মন্ডলের ছেলে তৌফিক রহমান,একই গ্রামের আনারুল ইসলামের ছেলে আশরাফুল ইসলাম (২০),বিশ্বনার্থপুর গ্রামের মোকলেছার রহমানের ছেলে মোসলেম উদ্দিন (২৪),কসবাসাগরপুর গ্রামের আব্দুল কালাম এর ছেলে বিপ্লব হোসেন (২৫) সাঘাই ঘাটা ওয়াহেদ চৌধুরীর ছেলে তারেক চৌধুরী (৩৪), বেড়াখাই গ্রামের দেলোয়ার হোসেনের ছেলে লিটন মিয়া (১৯) পৌর শহরের কলনি পাড়া এলাকার মৃত্য আজগর আলীর স্ত্রী আতিয়া বেগম ও ঘোড়াঘাট উপজেলার কাশিগাড়ি সিংড়া গ্রামের তাজলেন হকের ছেলে মিলন মিয়া (২২)।

বিরামপুর থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনির জানান, রবিবার রাতে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় মাদক সেবন করার সময় ওই যুবকদের আটক করা হয়। এর মধ্যে এক মহিলাকে মাদক বিক্রির অপরাধে আটক করা হয়।

পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট তৌহিদুর রহমানের কাছে তাদের হাজির করা হলে তিনি তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড প্রদান করেন ।

ধামইরহাটে জমি জমা সংক্রান্ত সংঘর্ষে নিহত-১

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি-নওগাঁর ধামইরহাটে জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে দুপক্ষের সংঘর্ষে আতিয়ার হোসেন (২৫) নামের এক যুবক নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো সাত জন।

নিহত আতিয়ার হোসেন উপজেলার খেলনা ইউনিয়নের অন্তর্গত দেবীপুর গ্রামের সাইজ উদ্দিনের ছেলে। এব্যাপারে থানায় মামলা দায়ের করলে পুলিশ সালেহা বেগম নামে মহিলাকে আটক করেছে।

গ্রামবাসী ও থানা সূত্রে জানা গেছে,উপজেলার খেলনা ইউনিয়নের অন্তর্গত দেবীপুর গ্রামের সাইজ উদ্দিনের ৫৮ শতাংশ জমির উপর বসতবাড়ী নিয়ে একই গ্রামের মৃত খোকার ছেলে জিয়াউল হক জিয়া সাথে বিরোধ বাঁধে।

গত ৬ ডিসেম্বর শুক্রবার সন্ধা সাড়ে ৭টার দিকে জিয়া ও তার মামাতো ভাই আইয়ুব হোসেনসহ প্রায় ২০ থেকে ২২ জন লোক সাইজ উদ্দিনের বসতবাড়ী নিজেদের দাবী করে দখল করতে আসে।

এ নিয়ে দুপক্ষের মাঝে সংষর্ষ বাধে। সংঘর্ষে সাইজ উদ্দিনে পক্ষে সাইজ উদ্দিন,আতিয়ার,আব্দুর রশীদ,সামসুদ্দিন,সাইজ উদ্দিনের দুই মেয়ে সাহানাজ,তানজিলা এবং সাইজ উদ্দিনের পুত্রবধু রাবেয়া অপর পক্ষের জিয়া সামান্য আহত হয়।

এদের মধ্যে মারাত্মক আহত আতিয়ার হোসেন গত শনিবার বিকেলে সাড়ে ৪টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

ঘটনার দিন রাতে জিয়ার মামাতো ভাই আইযুব হোসেন থানায় একটি মামলা দায়ের করলে ওই রাতে থানা পুলিশ আতিয়ারের মা আফরোজা বেগম বুলু এবং তার বোন সাহানাজ কে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করে। এদিকে গত শনিবার রাতে নিহত আতিয়ারের চাচাতো ভাই আব্দুর রশীদ বাদী হয়ে ২৭জনকে আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে।

পুলিশ ওই মামলার আসামী ঝন্টু মিয়ার স্ত্রী সালেহা বেগম (৫৫) কে আটক করেছে। এদিকে মামলার অপর আসামীরা পলাতক রয়েছে। প্রায় ১ মাস পূর্বে ওই আসামীরা নিহত আতিয়ার হোসেনকে আক্রমণ করেছিল। এব্যাপার আতিয়ার থানায় মামলাও দায়ের করেছিল।

গতকাল রবিবার সকাল ১১টার দিকে নওগাঁর পুলিশ সুপার প্রকৌশলী মো.আব্দুল মান্নান মিয়া ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। আতিয়ার হোসেনের লাশের ময়না তদন্ত শেষে রবিবার বিকেলে তার গ্রামের বাড়ীতে আসলে শোকের ছায়া নেমে আসে। আতিয়ার মা আফরোজা বেগম ও তার বোল সাহানাজের জামিনের পর লাশ দাফন করা হবে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো.জাকিরুল ইসলাম বলেন,নিহত আতিয়ারের চাচাতো ভাই বাদী হয়ে ২৭ জনকে আসামী করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে।

পুলিশ একজনকে আটক করে কোর্ট হাজতে প্রেরণ করেছে। বাকী আসামীদের ধরার চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

বিরামপুরে সাংবাদিকের বাড়ি ভাংচুরের ঘটনায় আটক-১

আজহার ইমাম-বিরামপুর শহরের পূর্বজগন্নাথপুর মন্ডলপাড়া মহল্লায় সাংবাদিক আব্দুল কুদ্দুসের বসত বাড়ির সীমানা প্রাচির ও দরজা-জানালা ভাংচুরের ঘটনায় পুলিশ প্রধান আসামী রফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে।
এজাহার সূত্রে প্রকাশ, সাংবাদিক আব্দুল কুদ্দুস ১৫/১৬ বছর আগে বাড়ি নির্মান করে পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছিলেন।

প্রতিবেশী আসামী রফিকুল ইসলাম ১০/১২জনকে সাথে নিয়ে হাসুয়া, ছোরা, রড ও লাঠিসোটা সমেত গত শনিবার সাংবাদিকের বাড়িতে অনধিকার প্রবেশ করে।
এসময় রফিকুলের হুকুমে অন্যান্য আসামীরা বাড়ির ১৫ হাত দীর্ঘ পাকা প্রাচির, গ্রিলের দরজা ও জানালা ভাংচুর করেছে। এতে ঐ সাংবাদিক আব্দুল কুদ্দুস থানায় লিখিত এজাহার দাখিল করেছেন।
এজাহারের ভিত্তিতে পুলিশ প্রধান আসামী রফিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করে রবিবার দিনাজপুর আদালতে সোপর্দ করেছে।

বিরামপুরে নেশার ইনজেকশন ও ফেন্সিডিলসহ আটক-৩

বিরামপুর (দিনাজপুর) সংবাদদাতা-বিরামপুর থানা পুলিশ ভারতীয় তৈরী এক হাজার পিচ নেশার ইনজেকশন (এ্যাম্পল) ও ফেন্সিডিলসহ তিন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে।

জানা গেছে, থানার উপ-পরিদর্শক শাহজাহান সিরাজ মাদক পাচারের সংবাদ পেয়ে টহলদলসহ পৌর এলাকার দক্ষিণ লক্ষীপুর গ্রামে রাস্তায় অবস্থান নেন।

এসময় পার্বতীপুর শহরের গুলপাড়া মহল্লার আঃ জলিলের পুত্র এরশাদ এবং বিরামপুর সীমান্ত এলাকার খিয়ার মামুদপুর গ্রামের মজির উদ্দিনের পুত্র শামীম মন্ডলকে আটক করেন। তাদের ব্যাগ তল্লাশী করে এরশাদের ব্যাগ থেকে ৬শ’ এবং শামীমের ব্যাগ থেকে ৪শ’ পিচ ব্রুপিনরফিন নেশার ইনজেকশন উদ্ধার করেন।

অপর দিকে, এসআই রামচন্দ্র উপজেলার কাদিপুর রাস্তায় অভিযান চালিয়ে ৫০ বোতল ফেন্সিডিলসহ হাকিমপুর উপজেলার পাইকপাড়া গ্রামের সেকেন্দারের পুত্র ফরিদুজ্জামানকে আটক করেন।
বিরামপুর থানার ওসি মনিরুজ্জামান তিনজনকে আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তাদের বিরুদ্ধে থানায় পৃথক দু’টি মামলা হয়েছে।

বিয়ের কাগজ নিয়ে তালবাহানা, কারাগারে কাজী!

মো.মাহাবুর রহমান-দিনাজপুরের বিরামপুরে মফেজ উদ্দিন নামের এক কাজীর বিরুদ্ধে বিয়ে নিয়ে প্রতারণার অভিযোগে উঠেছে। এই ঘটনায় ভূক্তভোগী সৈয়দ রাশেদুজ্জামান (২৬) নামের এক ব্যক্তি ওই কাজির বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দাখিল করেছেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে কাজী মফেজ উদ্দিনকে গ্রেফতার করে দিনাজপুর কারাগারে পাঠিয়েছেন।

গ্রেফতার কৃত কাজী মফেজ উদ্দিন সরকার উপজেলার জোতবানি ইউনিয়নের কেটরাপাড়া গ্রামের ফয়েজ উদ্দিন সরকারের ছেলে। বিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো.মনিরুজ্জামান মনির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

থানার এজাহার সূত্রে জানাযায়, বিরামপুর উপজেলার বিনাইল ইউনিয়নের অচিন্তপুর গ্রামের সৈয়দ পয়গম্বর আলীর ছেলে সৈয়দ রাশেদুজ্জামান (২৬) চাপড়া গ্রামের লুৎফর রহমানের মেয়ে শিরিনাকে (২৪) গত ২৯ সেপ্টেম্বর জোতবানী ইউনিয়নের কাজী মফেজ উদ্দিন সরকার এর কাজী অফিসে বিয়ে করেন। বিয়ের সময় কাজী মফেজ উদ্দিন ৫ হাজার টাকা নিলেও বিয়ে রেজিষ্ট্রির কোন কাগজ দেন নাই।

রাশেদুজ্জামান জানান, বিয়ের কাগজ পত্রের বিষয়ে কাজী মফেজ উদ্দিনের নিকট বহুবার যোগাযোগ করেও তিনি কোন কাগজ দেন নাই। পরে অবশেষে ঐ কাজী বিয়ে রেজিষ্ট্রির কাগজ দিতে দশ হাজার টাকা দাবি করেন।

বিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মো.মনিরুজ্জামান জানান, অতিরিক্ত টাকা দাবি ও রেজিষ্ট্রির কাগজ না পেয়ে রাশেদুজ্জামান বৃহস্পতিবার (৭ নভেঃ) বিরামপুর থানায় মামলা করেছেন। পুলিশ কাজী মফেজ উদ্দিনকে আটক করে দিনাজপুর কারাগারে পাঠিয়েছে।

ফুলবাড়ী সীমান্তে বিজিবি’র সাহসীকতায় ডাকাতির চেষ্টা ব্যর্থ॥

মোঃ আফজাল হোসেন-ফুলবাড়ী উপজেলার এলুয়াড়ী ইউপির রাধা কৃষ্ণপুর গ্রামে বিজিবি’র সাহসীকতায় ডাকাতদের ডাকাতি চেষ্ঠা ব্যর্থ হয় । অবশেষে বিজিবি’র তাড়া খেয়ে পালিয়ে যায়।

ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবি’র অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ শরীফ উল্লা আবেদ (এসজিপি) গত রবিবার দিবাগত রাত্রিতে গোপন সূত্রে সংবাদ পেলে ২৯ বিজিবি’র আওতায় রুদ্রানী ক্যাম্পে কমান্ডার সুবেদার মোঃ বাদসা মিয়া মিয়াকে সঙ্গে নিয়ে ঐ দিন রাতে দ্রুত এলায়াড়ী ইউপির রাধা কৃষ্ণপুর গ্রামের শফিকুল সরকারের দুগ্ধজাত খামার বাড়ীতে সংঘবদ্ধ ডাকাত দল ডাকাতি করার চেষ্ঠা করলে বিজিবি’র ঘটনা স্থলে গিয়ে হ্যান্ড মাাইকে ডাকাত দলকে অস্ত্র ফেলে দিয়ে অত্মসমার্পন করার নিদের্শ দেন। ডাকাত দল এ সময় অবস্থা বেগতিক দেখে তারা পালিয়ে যায়।

জানা যায় এলুয়াড়ী ইউপির রাধার কৃষ্ণপুর গ্রামে সফিকুল সরকারের দুগ্ধ খামারে প্র্য়া ২ কোটি টাকার গবাদি পশু ছিল। এই ঘটনায় এলুয়াড়ী ইউপির সচেতন মানুষ ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবি’র অধিনায়ক অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোঃ শরীফ উল্লা আবেদ (এসজিপি) সাহসীকতাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

তিনি ফুলবাড়ী ২৯ বিজিবি’র দায়িত্ব ভার পওয়ার পর সীমান্তের ৮১ কিলোমিটার এলাকায় চোরাচালান, নারী ও শিশু পাচার, সীমান্তে হত্যা সহ নানা রকম কার্যক্রম বন্ধ করেছেন। এছাড়া সীমান্তে বসবানকারী এলাকার মানুষকে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে কাজ করে চলেছেন।

নওগাঁয় ধামইরহাটে স্ত্রী হত্যাকারী স্বামী গ্রেফতার

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি- নওগাঁর ধামইরহাট উপজেলার রামরামপুর (তেলীপাড়া) গ্রামে নিজ স্ত্রীকে হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় একমাত্র পলাতক আসামী ওই গৃহবধুর স্বামী নূর মোহাম্মদ (৪০) কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৫।

গত মঙ্গলবার দিনগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে র‌্যাব-৫, জয়পুরহাট ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার সহকারী পুলিশ সুপার একেএম, এনামুল করিমের নেতৃত্বে র‌্যাবের একটি দল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে নওগাঁ জেলার বদলগাছি উপজেলার মিঠাপুর পালপাড়া এলাকা থেতে তাকে গ্রেফতার করে। পরে তাকে ধামইরহাট থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা র‌্যাব।

এব্যাপারে ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো.জাকিরুল ইসলাম বলেন,আসামী নুর মোহম্মদ নওগাঁর আমলী আদালত-৯ এর বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৬৪ ধারায় হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে।

উল্লেখ্য, গত সোমবার রাতে ঘাতক মোঃ নুর মোহাম্মদ (৪০) তার স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন (৩৪) কে হত্যা করে পালিয়ে যায়। সে ওই গ্রামের ওয়াজেদ আলীর পুত্র।

হিলি সীমান্তে ফেন্সিডিলসহ মহিলা আটক

মোসলেম উদ্দিন,হিলি-দিনাজপুরের হিলি সীমান্তে ১৪০ বোতল ফেন্সিডিলসহ এক জন মহিলা মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

আটককৃত মহিলা হিলি-হাকিমপুর উপজেলার নওপাড়া গ্রামের এরশাদের স্ত্রী জান্নাতুন ফেরদৌস (২২)।

আটককৃত জান্নাতুন ফেরদৌসকে বুধবার (২৪ জুলাই) দুপুরে প্রচলিত মাদক দ্রব্য আইনে মামলা দায়ের করে দিনাজপুর জেল-হাজতে পাঠিয়েছে বলে জানিয়েছেন হাকিমপুর থানা অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন।

তিনি আরো জানান,মঙ্গলবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই রাকিব হোসেন (উপ-পরিদর্শক) সঙ্গী ফোর্স নিয়ে উপজেলার নওপাড়া গ্রামের এরশাদের বাড়িতে অভিযান চালায়।

অভিযান চালিয়ে খড়ের পালায় লুকানো একটি স্কুল ব্যাগে ৫০ বোতল ও বাহিরে ৯০ বোতল ফেন্সিডিলসহ তার স্ত্রী জান্নাতুনকে আটক করে। তার বাড়িতে ফেন্সিডিল বহন করা ১৫০০ সিসি মোটরসাইকেলও জব্দ করা হয়েছে।

ধামইরহাটে মারপিট করে লক্ষাধিক টাকা লুট করেছে দুর্বৃত্তরা

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি-নওগাঁর ধামইরহাটে দিনের বেলা মারপিট করে লক্ষাধিক টাকা লুট করেছে দুর্বৃত্তরা। বাড়ীর গৃহকর্তার মুখে কাপড় গুজে বেধড় পিটিয়ে গরু ব্যবসার প্রায় লক্ষাধিক টাকা লুট করেছে। সুবিচারের আশায় গৃহকর্তা আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী বাদী হয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে।

ধামইরহাট থানায় অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে,উপজেলার জাহানপুর ইউনিয়নের অন্তর্গত কোকিল আবুল মাস্টারপাড়া গ্রামের আনোয়ার হোসেনের সাথে জমি জমা সংক্রান্ত বিরোধ ছিল একই গ্রামের আব্দুল আজিজ এর সাথে। এর জের ধরে গত রবিবার বিকেল আনুমানিক সাড়ে ৫টার দিকে আজিজ গংরা আনোয়ার হোসেনের বাড়ীতে প্রবেশ করে তাকে একা পেয়ে এলোপাথাড়ী মারপিট করে। আনোয়ার হোসেনের পিটে অসংখ্য আঘাত ও তার স্ত্রী মুক্তা বেগমের মাথায় আঘাতের চিহৃ রয়েছে।

বর্তমানে আনোয়ার হোসেন ও তার স্ত্রী মুক্তা বেগম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রয়েছে। এব্যাপারে আনোয়ার হোসেন বলেন,আমার প্রতিবেশী আব্দুল আজিজ গংদের সাথে আমার দখলীয় ২ একর মাঠের জমি নিয়ে গত ৫/৬ বছর ধরে বিরোধ চলছে।

বিয়ষটি স্থানীয় জাহানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে বিচার দেয়া হলেও চেয়ারম্যানের বিচার মানেনি আজিজ গং। ওইদিন আব্দুল আজিজ ও তার ছেলে আলিম,সালাম,সাত্তার তার মেয়ে জামাই জিল্লুর ও মফিজুল ইসলাম বিকেলে আকস্মিক আমার বাড়ীতে প্রবেশ করে মুখে কাপড় দিয়ে মুখ বন্ধ করে মাটিতে ফেলে উপুর করে লাঠি দিয়ে পিটে এবং হাতে মারপিট করতে থাকে।

এ সময় বাড়ীতে কেউ ছিলনা। পরবর্তীতে আমার স্ত্রী মুক্তা বেগম (২৮) বিষয়টি জানতে পেয়ে আমাকে বাঁচার জন্য বাড়ীতে এলে তাকেও মাথাসহ বিভিন্ন জায়গায় আঘাত করে। দুর্বৃত্তরা এ সময় আমার স্ত্রীর প্রায় ৫০ হাজার টাকার সোনার গহনা ও গরু ব্যবসার নগদ ১লক্ষ ৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়।

এব্যাপারে জাহানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো.ওসমান আলী বলেন,জমিজমা সংক্রান্ত বিষয়ে আমি দুই পক্ষকে নিয়ে বৈঠক করেছি। আনোয়ার হোসেনের কাগজপত্র সঠিক রয়েছে। তারপরও আব্দুল আজিজ গংরা গায়ের জোরে আনোয়ার হোসেনে দখলীয় জমি দখল করতে চায়।

এব্যাপারে ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো.জাকিরুল ইসলাম বলেন, দুই্ পক্ষ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। উভয় পক্ষকে ডেকে বিষয়টি মিমাংসার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।