বৃহস্পতিবার-২১ নভেম্বর ২০১৯- সময়: রাত ১:১২
বিরামপুরে অসহায় ও দরিদ্রদের বিনামূল্যে চোখের অপারেশন বিরামপুরে সাংবাদিকের বাড়ি ভাংচুরের ঘটনায় আটক-১ ৭ কেজি চালের মূল্যে মিলছে ১কেজি পেয়াজ বিরামপুরের বাজারে চিকিৎসা সেবা দিয়ে মানব সেবা করতে চাই-পর্যটন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব হুমায়ুন কবীর বিরামপুরে নেশার ইনজেকশন ও ফেন্সিডিলসহ আটক-৩ হিলি চেকপোস্টে বিজিবি’র গোয়েন্দা সদস্যের বিরুদ্ধে সাংবাদিককে হয়রাণীর অভিযোগ বিরামপুরে বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস পালিত বিরামপুরে প্রকল্প সমাপনী কর্মশালা গরীব ও অসহায় মানুষকে চিকিৎসা সেবা দিতে পারলে আমি শান্তি পাই জনবল ও সরঞ্জামের অভাবে আজও চালু হয়নি, নবাবগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশন

দ্বিতীয় ইনিংসেও সেঞ্চুরি, রেকর্ড গড়লেন রোহিত

রোহিত শর্মাকে টেস্টে ওপেন করানোর নিয়ে বিস্তর কথা-বার্তা হয়েছে। যাকে টেস্ট দলেই রাখতে রাজি নন ভারতীয় ক্রিকেটের নীতি-নির্ধারকরা, তাকে দিয়ে আবার ইনিংস ওপেন করানো! তবুও শেষ পর্যন্ত টেস্টেও ইনিংস ওপেন করার সুযোগ পেলেন তিনি এবং সুযোগটাকে এমনভাবে কাজে লাগালেন, তাতে সমালোচনাকারীদের দাঁতভাঙা জবাব দাঁড় করিয়ে দিতে পারলেন তিনি।

এই প্রথম টেস্টে ইনিংস ওপেন করতে নামলেন তিনি এবং মাঠে নেমেই প্রথম ইনিংসে খেললেন ১৭৬ রানের দুর্দান্ত এক ইনিংস। মায়াঙ্ক আগরওয়ালকে নিয়ে গড়েন রেকর্ড ৩১৭ রানের দুর্দান্ত এক জুটি।

বিশাখাপত্মনমে এবার টানা দ্বিতীয় ইনিংসেও সেঞ্চুরি করে ফেললেন রোহিত শর্মা। ১৪৯ বলে ১২৭ রান করে আউট হন রোহিত। এই ইনিংস খেলে রেকর্ডের পাতায়ও প্রবেশ করেন ভারতীয় ওপেনার।

টেস্ট ইতিহাসে প্রথমবার ইনিংসের ওপেন করতে নেমে টানা দুই ইনিংসেই সেঞ্চুরি করা প্রথম ব্যাটসম্যানে পরিণত হলেন রোহিত শর্মা। ১২৭ রানে আউট হওয়ার সময় তার ব্যাট থেকে এসেছিল ৭টি ছক্কা এবং ১০টি বাউন্ডারির মার।

ভারতের টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ছক্কা মারার রেকর্ডটিও নিজের দখলে নিয়ে নেন রোহিত। দুই ইনিংস মিলে মোট ১৩টি (৬ + ৭) ছক্কা মারেন তিনি। এর আগে এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ৮টি ছক্কা মারার রেকর্ড ছিল নভোজিৎ সিং সিধুর, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে।

প্রথম ইনিংসে ৫০২ রানে ইনিংস ঘোষণা করার পর দক্ষিন আফ্রিকা অলরাউট হয় ৪৩১ রানে। জোড়া সেঞ্চুরি করেন দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটসম্যান ডিন এলগার এবং কুইন্টন ডি কক। হাফ সেঞ্চুরি আসে অধিনায়ক ফ্যাফ ডু প্লেসির ব্যাট থেকে।

৭১ রানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে ভারত। নেমেই আগের ইনিংসে ডাবল সেঞ্চুরি করা মায়াঙ্ক আগরওয়ালের উইকেট হারায় শুরুতেই। মাত্র ৭ রান করে আউট হন আগরওয়াল। ২১ রানে প্রথম উইকেট পড়ার পর চেতেশ্বর পুজারাকে নিয়ে জুটি বাধেন রোহিত।

এ দু’জন মিলে গড়েন ১৬৯ রানের জুটি। ১৪৮ বলে ৮১ রানের ইনিংস খেলে আউট হয়ে যান পুজারা। ৩২ বলে ৪০ রান করে আউট হন রবীন্দ্র জাদেজা। এ রিপোর্ট লেখার সময় ৬৭ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ৩২৩ রান করে ইনিংস ঘোষণা করে দিয়েছে ভারত। অর্থ্যাৎ জয়ের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে ছুঁড়ে দিয়েছে ৩৯৫ রানের লক্ষ্য। ৩১ রানে বিরাট কোহলি এবং ২৭ রানে অপরাজিত থাকেন আজিঙ্কা রাহানে।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *