রবিবার-৯ আগস্ট ২০২০- সময়: বিকাল ৫:৫০
বিরামপুরে পৌর মেয়র সহ ৭ জন হোম কোয়ারেন্টাইনে বিরামপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী পালিত বিরামপুরে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি আটক বিরামপুরে লাখো কণ্ঠে ৭ মার্চের ভাষন পাঠ গুরুদাসপুরে এক বৃদ্ধা খুন বিরামপুরে সর্বোচ্চ নম্বরপ্রাপ্ত কাটলা হলি চাইল্ড স্কুল বিরামপুরে মুজিব বর্ষ উপলক্ষ্যে দিনব্যাপী অনুষ্ঠান দিদউফ বিরামপু‌রে দুস্থ শীতার্ত‌দের মা‌ঝে শীতবস্ত্র বিতরন বিরামপুরে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস ও জন্মশতবার্ষিকীর ক্ষণ গণনার সূচনা বিরামপুরে ১২ হাজার শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস খাওয়ানো হয়েছে

রাজশাহী newsdiarybd.com:

গুরুদাসপুরে এক বৃদ্ধা খুন

মোঃ মাসুদুর রহমান রুবেল-নাটোর জেলার গুরুদাসপুর থানার পারগুরুদাসপুর গ্রামে মনোয়ারা বেগম (৬৫)নামের এক বৃদ্ধা খুন হয়েছেন।
ভোর ৬ টার দিকে নিহতের স্বামী ফজরের নামাজের উদ্দেশ্যে মসজিদে গেলে মনোয়ারা বেগম ওজু করে নামাজে দাঁড়িয়ে যান।
নামাজরত অবস্থায় কে বা কারা তাকে ছুরিকাঘাত করে তার গহনা গুলো নিয়ে যায়।অতপর হাতেম মাস্টার মসজিদ হতে বাড়ি ফিরে এসে উদ্ভুত  পরিস্থিতি দেখে চিৎকার শুরু করে দেন।
আশেপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হতেই মনোয়ারা বেগম মারা যান। তার বুকে ও গলায় আঘাতের চিন্ন পাওয়া যায়। খবর পেয়ে গুরুদাসপুর থানার ওসি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ  করছেন বলে জানা গেছে।

ঐতিহ্যবাহী খেজুর রস, কালের পরিক্রমায় প্রতি বছরই হাজির হয় শীত

মহাদেবপুর (নওগাঁ) প্রতিনিধি– অতীত-বর্তমানের রেষারেষির যাতাকলে পড়ে নওগাঁর মহাদেবপুরে হারিয়ে যাচ্ছে গ্রামবাংলার ঐতিহ্যবাহী খেজুর রস। কালের পরিক্রমায় প্রতি বছরই হাজির হয় শীত।

সকালে ঘাসের ডগায় শিশির ভেজা মুক্তকণা জানান দিচ্ছে শীতের। বিভিন্ন প্রাকৃতিক উপাদান নিয়ে হাজির হয় এ ঋতু। তার মধ্যে অন্যতম খেজুর রস। শীতের সাথে রয়েছে খেজুর রসের এক অপূর্ব যোগাযোগ।

শীতকালের শুরুতেই গ্রাম গঞ্জের মনুষেরা খেজুর গাছ ছিলানো (কাটা) নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়তো। কে কার আগে রস সংগ্রহ করতে পারে। বিশেষ করে শীত মৌসুম এলে গাছিদের আনন্দের সীমা থাকতো না। শীতের ভোরে খেজুর রস সংগ্রহের জন্য গাছিরা মহাব্যস্ত হয়ে পড়তো। কোমরে মোটা রশি বেঁধে গাছে ঝুঁলে-ঝুঁেেল রস সংগ্রহ করতো গাছিরা।

খেজুর রস সংগ্রহ করে নতুন আমন ধানের পিঠা ভাপা-পুলি ও পায়েশ তৈরির ধুম পড়ে যেতো গ্রামে গ্রামে। শীত যতো বাড়তে থাকে খেজুর রসের মিষ্টতাও তেমন বৃদ্ধি পায়। এক সময় খেজুর রসের মন মাতানো গন্ধে মৌ মৌ করত পল্লী গ্রামের অলি গলি।

শীতের সকালে খেজুর রসে ভিজিয়ে মুড়ি না খেলে গ্রাম গঞ্জের মানুষদের যেন দিনটাই ভালভাবে শুরু হতো না। শীতের সকাল মানেই গ্রামের অলি গলিতে চলতো রস-মুড়ির আড্ডা। সময় বয়ে চলার সাথে সাথে রস-মুড়ি খাওয়ার সকালের সেই পারিবারিক আড্ডা বর্তমানে আর দেখা যায়না।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, বাড়ি-ঘর নির্মাণ আর নির্বিচারে গাছ কাটার ফলে খেজুর গাছের সংখ্যা পল্লী গ্রামে অস্বাভাবিক ভাবে কমে গেছে। যে হারে গাছ কাটা হয়েছে; সে হারে রোপণ করা হয়নি। যা আছে তাও সঠিকভাবে পরিচর্যা না করা এবং গাছ ছিলানোর (কাটা) পদ্ধতিগত ভুলের কারনে প্রতিবছর অসংখ্য গাছ মারা গেছে। প্রতি বছরের ন্যায় এবছরও পেশাদার গাছির সংকট।

তারপরেও উপজেলার কয়েকটি এলাকায় ইতিমধ্যে শখের বশতঃ গাছিরা নামমাত্র রস সংগ্রহ করছে। হয়তো সেদিন খুব বেশি দূরে নয়, যেদিন খেজুর রসের কথা মানুষের মন থেকে হারিয়ে যাবে।

আগামী প্রজন্মের কাছে খেজুর রস রূপকথার গল্পের মতো মনে হবে। সচেতনদের মতে, বাড়ির আনাচে-কানাচে, রাস্তার পার্শ্বে, পরিত্যক্ত স্থানে পর্যাপ্ত পরিমানে খেজুর গাছ রোপণ করলে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে খেজুর গাছের রস ও গুড় সম্পর্কে কোন গল্পকথা বলতে হবে না।

উপজেলার কর্ণপুর গ্রামের গাছি ছামাদ বলেন, ‘শীত মৌসুম এলে গাছ ছাটাই করে রস বিক্রির টাকায় ভালভাবে সংসার চালাতে পারতাম। আগে প্রতি বছর শীত মৌসুমে নিজের গাছ ছাড়াও নির্ধারিত অর্থ বা গুড় দেয়ার চুক্তিতে অন্যের ১০-১৫ টি গাছ ছিলতাম (কাটা)। কিন্তু এখন গাছ মরে যাওয়া এবং গাছ বিক্রি করার কারনে মাত্র একটি গাছ কাটি। গাছ কম থাকায় গ্রামবাসী খেজুর রস থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।’

উপজেলার পাহাড়পুর গ্রামের গাছি মুনু মন্ডল বলেন, ‘শীত মৌসুম এলেই সারা বছর অযতেœ অবহেলায় পড়ে থাকা খেজুর গাছের কদর বেড়ে যেতো। আমার নিজস্ব খেজুর গাছ না থাকলেও আমি মালিকদের গাছ ছাটাই করে সংগ্রহীত রসের একটি অংশ প্রদান করতাম।’

এ ব্যাপারে উপজেলার সফাপুর গ্রামের কফিল উদ্দিন নামে এক প্রবীণ বলেন, ‘এক সময় আমাদের এলাকায় প্রায় প্রতিটি বাড়িতে, জমির আইলে, রাস্তার পার্শ্বে ও পতিত জমিতে সারি সারি খেজুর গাছ ছিল।

বর্তমানে খেজুর গাছ মরে যাওয়া এবং বিক্রি করার কারনে খেজুর গাছ নেই বল্লেই চলে। বর্তমানে খেজুর গাছের সংখ্যা কমতে কমতে বিলুপ্ত প্রায়।’

ধামইরহাটে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় বড়দিন পালিত

 

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি-নওগাঁর ধামইরহাটে বিপুল উৎসাহ উ্দ্দীপনা মধ্যদিয়ে খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব বড়দিন পালিত হয়েছে। খ্রিষ্ট পল্লীগুলোতে নতুন সাজে সেজেছিল।

নারী,পুরুষ ও শিশু দিবসটি উপলক্ষে নতুন পোশাক পড়ে বিভিন্ন কর্মসূচীতে অংশ গ্রহণ করেন।

জানাগেছে, বুধবার উপজেলার প্রায় ৪টি বড় এবং প্রায় ৬২টি ছোট গীর্জায় দেশবাসীর শান্তি সমৃদ্ধি কামনা করে দিবসের কার্যক্রম শুরু হয়। দিনের অন্যান্য কর্মসূচীর মধ্যে ছিল খেলাধুলা,সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান,উন্নত খাবের পরিবেশন করা।

খ্রিষ্টান অধ্যুষিত লক্ষীতাড়া গ্রামের অধিবাসী ও উপজেলা পারগানা সেবেস্তিয়ান মুরমু বলেন,আমাদের এই দিনটি সবচেয়ে উৎসবের দিন। এক বছর ধরে আমরা অপেক্ষা করি কবে আসবে এদিনটি।

এ দিনে পরিবারের সকলে নতুন পোশাক পরিধান করে এবং উন্নতমানের খাবারের আয়োজন করা হয়। বড়দিন উপলক্ষে খিষ্টান পল্লীর মাটির ঘরগুলো বিভিন্ন আলপনার মাধ্যমে বর্ণিল সাজে সাজানো হয়েছিল।

বেনিদুয়ার ক্যাথলিক চার্জের ফাদার মি.কর্ণেলিউস মুরমু বলেন,বেনীদুয়ার,সোনাদিঘী,উত্তর চকযদু ও তালঝাড়ী চার্জসহ অন্যান্য চার্জে সকলের জন্য প্রার্থনা করা হয়।

প্রার্থনার পর খ্রিষ্ট ধর্মাবলম্বীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করা হয়। এছাড়া খেলাধুলা,সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও মতবিনিময়ের আয়োজন করা হয়।

ধামইরহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার গনপতি রায় বলেন,বড়দিন উপলক্ষে সরকারের পক্ষ থেকে প্রত্যেক গীর্জায় অনুদান প্রদান করা হয়েছে। বড়দিন উপলক্ষ যেন কোন বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি না হয় সেই লক্ষ সার্বক্ষনিক খোঁজ খবর নেয়া হয়েছে।

ধামইরহাটে তীব্র শীতে জনজীবন বিপর্যস্ত

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি-নওগাঁর ধামইরহাটে প্রচন্ড শীতে জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। শীতের কারণে বৃদ্ধ ও শিশুরা বিপাকে পড়েছে।

গরম কাপড়ের অভাবে অসহায় পরিবারগুলো ভোগান্তি পড়েছে। তবে আশার কথা সরকারি ও বেসরকারী পর্যায়ে শীতবস্ত্র হিসেবে কম্বল বিতরণ পুরোদমে চলছে।

জানা গেছে,বুধবার মধ্যরাত থেকে পরদিন দুপুর পর্যন্ত ঘন কুয়াশার কারণে সূর্যের মুখ দেখার কারণে শীতের তীব্রতা বেড়ে গেছে।

শৈত্যপ্রবাহের ফলে মানুষ জরুরী প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছে না। হটাৎ করে শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ার খেটে খাওয়া শ্রমজীবি মানুষরা সবচেয়ে বেশি বেকায়দায় পড়েছে। এছাড়া শীতের কারণে বৃদ্ধ ও শিশুরা অসহায় জীবন যাপন করছে।

গরম কাপড়ের অভাবের ছিন্নমুল মানুষ বেশি কষ্ট পাচ্ছে। বাস,ট্রাক ও অন্যান্য যানবাহন হেড লাইট জ্বালিয়ে চলাচল করছে। তবে রিক্স,ভ্যান,অক্টো চার্জারের যাত্রী ও চালকরা প্রয়োজনের তাগিদে ঘন কুয়াশার মধ্যে চলাচল করতে হচ্ছে।

এদিকে, গবাদি পশু তীব্র শীতের মধ্যে গো খাদ্য সংগ্রহের জন্য খোলা মাঠে চড়ানো হচ্ছে। স্থানীয় জগৎনগর গ্রামের আদিবাসী কৃষক সন্তোষ মুরমু বলেন,প্রচন্ড শীতের কারণে মাঠে কাজ করা যাচ্ছে না।

দিনরাত সমান শীতের কারণে তিনি কাহিল হয়ে পড়েছেন। বড় চকগোপাল গ্রামের কৃষক রইচ উদ্দিন বলেন,অনেক কষ্টে তিনি একটি সংস্থা থেকে কম্বল পেয়েছেন। সরকারি ও সেরকারি পর্যায়ের গরম কাপড় হিসেবে কম্বল বিতরণ চলছে।

এব্যাপারে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো.ইস্রাফিল হোসেন বলেন,৮টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় সরকারের পক্ষ থেকে প্রায় ৪হাজার ১শত ৪০ পিচ কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। আরও বরাদ্দ আবেদন করা হয়েছে। এদিকে তীব্র শীতের কারণে অনেকে ঠান্ডাজনিত বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা.স্বপন কুমার বিশ্বাস বলেন,শীতের কারণে অনেকে ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে পড়ছে।

ডায়রিয়ায় আক্রান্ত ৪-৫ জন রোগি হাসপাতালে সেবা দেয়া হয়েছে। এছাড়া ঠান্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত এবং এ্যাজমা রোগিদেরকে বিশেষ সেবা প্রদানের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

পাঁচবিবিতে এমপি কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট উদ্বোধন

পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি-২৫ ডিসেম্বরজয়পুরহাটের পাঁচবিবির আওলাইয়ে জয়পুরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. সামছুল আলম দুদু এমপি কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট-১৯ এর শুভ উদ্বোধন করা হয়। মঙ্গলবার বিকালে মগুর চন্ডি গ্রামবাসির আয়োজনে এ টুর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন এমপি দুদু।

এসময় উপস্থিত ছিলেন থানার অফিসার ইনচার্জ মনসুর রহমান, আওলাই ইউনিয়ের সাবেক চেয়ারম্যান ও আঃলীগ নেতা একরামুল হক চৌধুরী তাওহীদ, নাহিদ ইলেকটনিকের সত্বাঃধিকারী তাজুল ইসলাম, স্থানীয় আঃলীগের প্রবীননেতা ময়েজ উদ্দিনসহ অনেকেই।

বিভিন্ন জেলার ১৬টি ফুটবল দলকে এ টুর্নামেন্টে আমন্ত্রন জানানো হয়। খেলাটি দেখার জন্য অসংখ্য নারী-পুরুষ দর্শক মাঠে উপস্থিত হয়।

ধামইরহাটে বড় দিন উপলক্ষে ৬৬টি গীর্জায় ৩৩ মে.টন চাল বিতরণ

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি-নওগাঁর ধামইরহাটে খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শুভ বড় দিন উপলক্ষে সরকারের পক্ষ থেকে ৬৬টি গীর্জায় ৩৩ মে.টন চাল বিতরণ করা হয়েছে।

আজ বুধবার খ্রিষ্টান সম্প্রদায়ের ধর্মীয় উৎসব বড় দিন উপলক্ষে উপজেলার খ্রিষ্টান পল্লীগুলো বর্ণিল সাজে সেজেছে।

বড় বড় গীর্জাগুলোকে বিদ্যুতের আলোতে আলোকিত করা হয়েছে। এক কথায় খ্রিষ্টান পল্লীগুলোতে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। আর এ উৎসবকে সফল করার লক্ষে সরকারের পক্ষ থেকে প্রত্যেক গীর্জার ৫শত কেজি চাল বরাদ্দ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার সকালে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার অফিসে খ্রিষ্টান সম্প্রদায়েরর লোকজন চাল উত্তোলনের জন্য ভিড় জমায়।

এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার গনপতি রায় বলেন,খ্রিষ্টানদের ধর্মীয় উৎসব সফল করার লক্ষে সরকারের পক্ষ থেকে ৬৬টি গীর্জায় ৫শত কেজি চাল সাহায্য হিসেবে বিতরণ করা হয়েছে।

পাঁচবিবিতে ইয়াবাসহ আটক-১

পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিরিনধি- ২৩ ডিসেম্বর জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে ৭’শ পিস নেশার ট্যালেট ইয়াবাসহ ১’জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ।

আটক ব্যাক্তি পাঁচবিবি পৌর এলাকার গণেশপুর এলাকার মৃত এলাহী বক্স এর ছেলে আঃ গফুর।

থানার অফিসার ইনচার্জ মনসুর রহমান বলেন, সোমবার সকালে পাঁচবিবি ডিগ্রী কলেজের নির্মাধীন একটি বিল্ডিংয়ে ইয়াবাগুলো কেনাবেচার উদ্দেসে অবস্থান করছিল গফুর।

এসময় থানা পুলিশ হাতেনাতে ইয়াবাসহ তাকে আটক করে। পরে মাদক আইনের মামলায় তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

ধামইরহাটে সরাসরি ধান কেনার দাবীতে সমাবেশ ও স্মারকলিপি প্রদান

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি-নওগাঁর ধামইরহাটে প্রত্যেক ইউনিয়নে একটি করে সরকারিভাবে ধান ক্রয় কেন্দ্র খোলে সরাসরি কৃষকদের কাছ ধান ক্রয়সহ ৮ দফা দাবীতে সমাবেশ ও স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলা ক্যান্টিন চত্ত্বরে বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) ধামইরহাট উপজেলা শাখার আয়োজনে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

দেবলাল টুডুর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, নওগাঁ জেলা বাসদের সমন্বয়ক জয়নাল আবেদীন মুকুল,ক্ষেতমজুর কৃষক ফ্রন্টের মঙ্গল কিস্কু, মহিলা ফোরামের ময়না উরাও,আদিবাসী নেত্রী তারা মনি উরাও প্রমুখ।

বক্তাগন বলেন,প্রত্যেক ইউনিয়নে একটি করে সরকারিভাবে ধান ক্রয় কেন্দ্র্র স্থাপনের মাধ্যমে সরকারি কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনার দাবী জানান। পরে ৮ দফা দাবী সমুহ একটি স্মারকলিপি উপজেলা নির্বাহী অফিসার গনপতি রায়ের নিকট প্রদান করা হয়।

ধামইরহাটে সহিংসতা মুক্ত পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে সাইকেল র‌্যালী

ধামইরহাট (নওগাঁ) প্রতিনিধি-নওগাঁর ধামইরহাটে মাদক,সন্ত্রাস,দুর্নীতি,নারী ও শিশুর প্রতি সহিংসতা মুক্ত পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ার লক্ষে সাইকেল র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

স্থানীয় সামাজিক সংগঠক ভিলেজ কেয়ার এবং যুব উন্নয়ন ফোরাম ধামইরহাটের আয়োজনে এ উপলক্ষে সোমবার সকাল ১১টায় শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম থেকে এক বিশাল সাইকেল র‌্যালী বের করা হয়।

র‌্যালী উদ্বোধন করেন, নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও মহাদেবপুর অঞ্চলের সার্কেল অফিসার আবু সালেহ মো.আশরাফুল ইসলাম। র‌্যালীতে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী,শিক্ষক ও তরুণ সমাজের প্রতিনিধিগণ অংশ গ্রহণ করেন।

র‌্যালীটি উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ধামইরহাট সরকারি এম এম কলেজে গিয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ভিলেজ কেয়ার এর প্রতিষ্ঠাতা মুরাদ মোবারক। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার গনপতি রায়,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু সালেহ মো.আশরাফুল ইসলাম প্রমুখ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, সহকারী পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান শাকিল, ধামইরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ শামীম হাসান সরদার, ধামইরহাট প্রেসক্লাবের সভাপতি আব্দুল আজিজ, যুব উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি জাহিদ ইকবাল, সহসভাপতি আবু আনসার স্বাধীন, সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান বান্না, ভিলেজ ফোরামের সাংগঠনিক সম্পাদক মুরাদুজ্জামান, আবু আনসারী, সাংবাদিক হারুন আল রশীদ, সাংবাদিক রেজুয়ান আলম প্রমুখ।

শখ করে মোটরসাইকেল চালাতে গিয়ে লাশ হলো স্কুল ছাত্র

বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি-নাটোরের বড়াইগ্রামে শখ করে মোটরসাইকেল চালাতে গিয়ে সড়কের পাশে গাছের সাথে ধাক্কা খেয়ে মারা গেছে নবম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্র।

রবিবার সকাল ১১ টার দিকে উপজেলার মাঝগাঁও ইউনিয়নের গুনাইহাটি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ওই স্কুল ছাত্রের নাম আমির হামজা (১৫)। সে গুনাইহাটি গ্রামের রান্টু সেখের ছেলে ও মাঝগাঁও দক্ষিণপাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্র।

বনপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক তৌহিদুল ইসলাম জানান, নিকট আত্নীয়ের কাছ থেকে মোটরসাইকেল চেয়ে নিয়ে গুনাইহাটি বাজারে আসার সময় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মোটরসাইকেলসহ আমির হামজা সড়কের পাশে গাছের সাথে ধাক্কা খায়। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় বনপাড়া পাটোয়ারী জেনারেল হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।