রবিবার-২৯ নভেম্বর ২০২০- সময়: রাত ৪:১৮
পর্যটকদের জন্য নয়নাভিরাম ‘সাজেক ভ্যালি’ শীতে বাঙ্গালীর ঐতিহ্য ভাপা পিঠা পাঁচবিবিতে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের সমাপণী কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত হলে মাদকমুক্ত ও অসমাপ্ত কাজ করব-আতিয়ার রহমান মিন্টু নেশার টাকার জন্য ২২ দিনের নবজাতককে কুপিয়ে হত্যা ঘোড়াঘাটে হেলথ এসোসিয়েশনের কর্মবিরোতি বন্ধ রাস্তা অবমুক্ত করলেন ইউএনও ভাতা বন্ধ ভাতা ভোগীরা মানবতার জীবনযাপন বিরামপুরে ৭২ বছরের বৃদ্ধ’কে ঔষধ ও আর্থিক সহায়তা দিলেন-ওসি মনিরুজ্জামান কোভিট-১৯ পরিস্থিতিতে মোরেলগঞ্জে বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেয়া হচ্ছে স্কুল ফিডিং বিস্কুট

পাঁচবিবির বধ্যভুমি পরিদর্শনে এডিসি

পাঁচবিবি (জয়পুরহাট) প্রতিনিধি- ৮ নভেম্বর. জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত জয়পুরহাট জেলার একদল শিক্ষার্থী ৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধ সম্পর্কে জানতে ও শিখতে সেই সময়ের ঘটে যাওয়া নানান ঘটনার স্থানগুলো সরেজমিন পরিদর্শন করেন।

৭১ সালে পাকহানাদার বাহিনী ও রাজাকার, আলবদর দ্বারা তৎকালিন পূর্ব পাকিস্থানের নিরীহ মানুষকে নির্বিচারে পাখির মত গুলি করে হত্যার পর যেখানে মাটিচাপা দিয়ে রেখে ছিল সেইসব স্থানগুলো এখন বধ্যভুমি হিসাবে পরিচিত।

 শনিবার দিনব্যাপী অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ মনিরুজ্জামানের নেতৃত্বে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাদের উপস্থিতে শিক্ষার্থীরা ওইসব বধ্যভুমি গুলো পরিদর্শন করেন। এসময় প্রত্যক্ষদর্শীদের নিকট থেকে সেই সময়ের নারকীয় ঘটনাগুলো শোনেন এবং বিভিন্ন বিষয়ে জানার এবং শিখার আগ্রহ প্রকাশ করেন।

পাঁচবিবি উপজেলায় ২৩টি বধ্যভুমি থাকলেও জেলায় মোট ৫৬টি। নন্দইল মিশন পাড়ায় নির্মিত মুক্তিযুদ্ধের আদিবাসী ভার্স্কয্য পরিদর্শনে গেলে ওই এলাকার ৭০ বছর বয়সের বৃদ্ধা সুখি সরেন ও কোকতাড়ার বকুলতলার বধ্যভুমি সর্ম্পকে দরগাপাড়ার নজরুল ইসলাম সেইসব দিনের নরহত্যার ঘটনাগুলো তাদের সামনে বর্ননা করেন।

গত মাসে জেলা প্রশাসক মোঃ শরীফুল ইসলাম উপজেলার বধ্যভুমি গুলো পরিদর্শন শেষে উপস্থিত মুক্তিযোদ্ধাদের বলেছিলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় ঘটে যাওয়া ঘটনা গুলো নতুন প্রজন্মর জন্য একটা ডকমেন্টঁরী তৈরী করা হবে। তারই ধারাবাহিকতায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসকের সমন্বে শিক্ষার্থীরা প্রত্যক্ষদর্শীদের বক্তব্য গুলো ভিডিও ধারন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ বরমান হোসেন, সহকারি কমিশনার (ভুমি) এম এম আশিক রেজা ও সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব আমিনুল ইসলাম বাবুল।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *